আবারও বজলুর রহমান স্মৃতিপদক পেলেন গাজীপুরের ইজাজ আহমেদ মিলন

আশিকুর আশিকুর

রহমান সবুজ

প্রকাশিত: ২:২৩ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৯, ২০২০ | আপডেট: ২:২৬:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৯, ২০২০
আবারও বজলুর রহমান স্মৃতিপদক পেলেন গাজীপুরের ইজাজ আহমেদ মিলন

 

স্টাফ রিপোর্টারঃমুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাংবাদিকতার জন্য মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রবর্তিত সাংবাদিক বজলুর রহমান স্মৃতিপদক পেলেন সমকালের গাজীপুর প্রতিনিধি ইজাজ আহমেদ মিলন ও চ্যানেল ২৪ এর বিশেষ প্রতিনিধি জি এম ফয়সাল আলম।

প্রিন্ট মিডিয়া বিভাগে গাজীপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক মুক্ত সংবাদে প্রকাশিত ‘১৯৭১: বিধ্বস্ত বাড়িয়ায় শুধুই লাশ’ শীর্ষক ১৮ পর্বের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্য মিলন এ পুরস্কার পেয়েছেন। পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর হত্যাযজ্ঞের অজানা ইতিহাস নিয়ে প্রতিবেদনের জন্য জি এম ফয়সাল আলম ইলেকট্রনিক মিডিয়া মাধ্যমে এ পুরস্কার পেয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কার হিসেবে তাদের পদক ও এক লাখ টাকা সম্মানী প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ও সদস্য-সচিব সারা যাকের। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জুম লিংক মাধ্যমে প্রধান অতিথির  বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে সরসরি উপস্থিত থেকে সভাপতিত্ব করেন এবং বিজয়ীদের হাতে পদক ও চেক তুলে দেন  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও জুরিবোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

প্রধান অতিথি ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী পদক বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়ে সাহসিকতার সাথে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় আত্মনিয়োগের জন্য বিশেষ করে তরুণ সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান, যা বজলুর রহমান আজীবন করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবাদিকতার জন্য এই পদক প্রবর্তনের জন্য তিনি মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ও বজলুর রহমানের পরিবারকে বিশেষ ধন্যবাদ দেন।

সভপতি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক সাংবাদিকতায় নানা বিষয়ে পদক প্রদানের প্রচলন থাকলেও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাংবদিকতার জন্য পদক প্রদানের বিশেষ গুরুত্ব তুলে ধরে নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকদের মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আনুসন্ধানী ও গবেষণাধর্মী প্রতিবেদন তৈরির আহ্বান জানান।

সারা যাকের করোনাকালীন এই সময়েও বিগত প্রায় চার মাস ধরে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে  বিকল্প পন্থায় জাদুঘরের নিয়মিত কর্মসূচি পালনের সংক্ষিপ্ত বিবরণী তুলে ধরেন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবদিকতার জন্য পদক বিজয়ীদের অভিনন্দন এবং অংশগ্রহণকারী সব সাংবাদিককে ধন্যবাদ জানান।

সংসদ সদস্য মতিয়া চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ডা. সারোয়ার আলী ও জিয়াউদ্দিন তারিক আলী, জুরিবোর্ডের সদস্য মনিরুজ্জামান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং ট্রাস্টি মফিদুল হকসহ অনেকেই জুম লিংক-এ যুক্ত ছিলেন।

২০০৮ সালে বাংলাদেশের সাংবাদিকতার অন্যতম পথিকৃৎ বজলুর রহমানের আকস্মিক মৃত্যুর পর তার পরিবার ও বন্ধুদের সহায়তায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে।


পুরাতন খবর দেখুন..

Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031