কুয়েত দূতাবাসের স্টাফদের আচরণে ক্ষুব্ধ প্রবাসীরা

প্রকাশিত: ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ | আপডেট: ১০:২৮:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯
কুয়েত দূতাবাসের স্টাফদের আচরণে ক্ষুব্ধ প্রবাসীরা

মোঃ শামসুল হুদা লিটনঃ কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্টাফদের অনৈতিক ও অমানবিক আচরণে ক্ষুব্ধ কুয়েত প্রবাসীরা। গত ২ সেপ্টেম্বর মিসিলায় স্থানান্তরিত নতুন দূতাবাসের গার্ড শাহিন কবিরের অনৈতিক আচরণের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এতে কুয়েত প্রবাসী সহ দেশের মানুষ হতবাক হয়েছেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, গরমে অতিষ্ঠ হয়ে দূতাবাসের ভেতরে মসজিদে পানি খেতে যাওয়ায় একজন কুয়েত প্রবাসীর কাগজপত্র ও মোবাইল কেড়ে নেয়া হয়। শুধু তাই নয়, ওই প্রবাসীকে ধাক্কা দিয়ে দূতাবাস থেকে বের করে দেয়া হয়। এমনকি পানি খেতে যাওয়া নিরীহ প্রবাসীর গায়ে হাত তোলার চেষ্টা করে দূতাবাসের গার্ড শাহিন কবির।
পরে আবার তাকে দূতাবাসে এক কর্মকর্তার কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনাটি বর্তমানে কুয়েত প্রবাসীদের মারাত্মক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। প্রশ্ন উঠেছে, একজন চতুর্থ শ্র্রেণির কর্মচারী হয়ে একজন প্রবাসীর সঙ্গে এই ধরণের অনৈতিক আচরণ কীভাবে করা হলো?
এই গার্ডের সঙ্গে মিলে আরেকজন ক্লিনার জাহিদও ওই সময় প্রবাসীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। প্রবাসীকে থাপ্পড় দিয়ে বের করে দেয়ার কথাও বলেন তারা। নিজ দেশের দূতাবাসে এ ধরনের আচরণে হতবাক প্রবাসীরা। এর আগেও খালেদিয়া এলাকায় দূতাবাস থাকাকালীন ওই একই গার্ডের অনিয়মের ভিডিও এবং দূতাবাসের অন্য আরেকজন স্টাফ জসিমের অনৈতিক আচরণের ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
কিন্তু প্রবাসীদের সঙ্গে বার বার ঘটে যাওয়া এ ধরণের অনিয়ম ও অনৈতিক আচরণের কোনো বিচার আদৌ হয়নি। এতে ক্ষুব্ধ কুয়েত প্রবাসী ও তাদের বাংলাদেশী আত্মীয় স্বজন । বারবার এই ধরনের আচরণ করার পরও কোনো বিচার না হওয়ায় কুয়েত দূতাবাসের স্টাফরা প্রবাসীদের সঙ্গে এধরনের জঘন্য আচরণ করার সাহস পায় বলে অভিযোগ প্রবাসীদের।
বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে এসব ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষী স্টাফদের আইনের আওতায় এনে ন্যায় বিচারের দাবি জানান প্রবাসীরা। নাম প্রকাশে একাধিক প্রবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, বিভিন্ন সময় প্রবাসী দূতাবাসে স্টাফদের দ্বারা অনৈতিক আচরণের শিকার হয় তারা। তবে ঝামেলা এড়াতে তারা অভিযোগ করতে সাহস না পেয়ে মনের দুঃখ মনে নিয়েই নিজের কাজ শেষ করে ফিরে যায় কর্মস্থলে।
এদিকে দূতাবাসের প্রধান মো. আনিসুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপরোক্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দযথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি দূতাবাস নতুন স্থানে হওয়ায় যথাযথ তদন্তে কিছুটা সময় লাগবে বলে জানানো হয়। বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বজায় রাখতে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে বলে জানযায়। এ দিকে কুয়েত দূতাবাসে প্রবাসীকে পানি না দিয়ে উপরন্তু হেনস্তা করার অমানবিক ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ ও আত্মীয় – স্বজনের মাধ্যমে বাংলাদেশে জানাজানি হলে সমালোচনার ঝড় উঠে।ফেসবুকে এ নিয়ে ব্যাপক লেখা লেখি হচ্ছে। অনেকেই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে অবিলম্বে কুয়েত দূতাবাসের কর্মকর্তা ও স্টাফদের প্রত্যাহার করে দেশে ফিরিয়ে আনার দাবী জানিয়েছেন।


পুরাতন খবর দেখুন..

Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031